কিভাবে শুরু করবেন

ফ্রীল্যান্সিং করতে কাজ শিখতে চাচ্ছেন? আপনি কোন বিষয়ের উপর কাজ শিখতে চাচ্ছেন সেটা কি বাছাই করেছেন? এখন ভালো ট্রেনিং সেন্টার

ফ্রীল্যান্সিং শিখতে চাচ্ছেন? শুরু করবেন কিভাবে তা নিয়ে অনিশ্চিত? ভাবছেন কিভাবে কোথায় শুরু করবেন এবং কোথায় ট্রেনিং নিলে ভালো শিখতে

অভিজ্ঞ ফ্রীল্যান্সাররা হাজার ব্যস্ততার মাঝেও প্রায় সবাই কোন না কোন প্রফেশনাল নেটওয়ার্কিং ফোরাম অথবা ব্লগে নিয়মিতভাবে সময় দেন। কিন্তু নতুন

ফ্রীল্যান্সিং এ কাজ পাবার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটা ব্যাপার হচ্ছে প্রোফাইল। যদি প্রোফাইল আপডেটেড এবং সম্পূর্ণ না হয় তবে কাজ

অনেকেই মাঝেমধ্যে প্রশ্ন করে থাকেন ফ্রীল্যান্সার হিসেবে কি কি কাজ করা যায় বা কি কি ধরণের কাজ রয়েছে মার্কেটপ্লেসগুলোতে। চেষ্টা

ইন্টারনেট এর মাধ্যমে অর্থ আয়ের ব্যাপারে অনেক বিজ্ঞাপন দেখা যায় যেখানে বলা হয় কিছু টাকা ইনভেস্ট করার ব্যাপারে। বলা হয়

সফল ফ্রীল্যান্সার

দক্ষ ফ্রীল্যান্সার হওয়া আসলেই একটু কঠিন বটে। সময় নিয়ে ধীরে ধীরেই দক্ষতা অর্জন করা সম্ভব। তবে শুধু বসে থেকেই তা

একজন সফল ফ্রীল্যান্সার (Freelancer) হতে হলে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে নিজের দক্ষতা বৃদ্ধি করা। কেননা যারা কাজ দিচ্ছে তাদের মূলতই লক্ষ্য

সাধারণ ফ্রীল্যান্স প্রোফাইল (Freelance Profile) এবং আদর্শ ফ্রীল্যান্স প্রোফাইল। এই দুই ধরণের প্রোফাইলের ভিতর অনেক পার্থক্য রয়েছে। এবং সাধারণ প্রোফাইলের

বর্তমানে অনেকেই একজন সফল ফ্রীল্যান্সার হতে চায়।এ জন্য কেউ হয়তো কোন বন্ধু, বড় ভাই অথবা বিভিন্ন ট্রেনিং সেন্টার থেকে কাজও

যেভাবে বুঝবেন আপনি কি ফ্রিলেন্সিং কাজ করার জন্য যোগ্য কিনা? অনেকেই আছেন যারা ফ্রিলেন্সিং কাজে  অন্যদের থেকে অনেক বেশী পারদর্শী।

একজন সফল ফ্রিল্যান্সার হতে হলে আপনাকে কিছুটা পরিশ্রম করতে হবে। যারা কম পরিশ্রমে ফ্রিল্যান্সার হয়ে অধিক আয় করতে চান তাঁরা

অ্যাডসেন্স

আপনারা যারা ইউটিউবে নিয়মিত ভিডিও আপলোড করে থাকেন তাদের সকলেই হয়তোবা ভিডিও এর ভিউ না হওয়া নিয়ে সমস্যা ফেস করেছেন।

আমাদের আগের পোস্টে (গেম খেলে আয় করুন) বলেছিলাম যে মোবাইল থেকে গেম খেলে আয় করা যায়। এই পোস্টে সেই বিষয়েই

অনেক আগে থেকেই অ্যাডসেন্স অবৈধ ক্লিক যাচাই বাছাই করা হলেও তা সম্পর্কে কোন রিপোর্ট দেয়া হতো না কিন্তু বর্তমানে তা

অ্যাডসেন্স থেকে কতো আয় করা সম্ভব? অ্যাডসেন্স নিয়ে যারা কাজ করেন তাদের প্রায় সকলেই এই প্রশ্নটি সবচেয়ে বেশী শুনে থাকেন।

ইউটিউব থেকে অর্থ আয় করা যায় তা এখন প্রায় সবাই কম বেশী জানেন। আসলেই তা যায় বলেই প্রায় অনেকেই ইউটিউব

অ্যাডসেন্স নিয়ে অনেকের মনেই অনেক প্রশ্ন জমে আছে। আর এর বেশীরভাগ প্রশ্নই খুবই কমন। প্রায় সবারই একই প্রশ্ন এবং সেগুলোরই

ফ্রীল্যান্সার হতে করণীয়

ফ্রীল্যান্সার (Freelancer) হিসেবে কাজ করার প্রথম শর্ত হচ্ছে মার্কেটপ্লেস (Marketplace) অ্যাকাউন্ট এর জন্য পর্যাপ্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা। যাতে অনাকাঙ্খিত সমস্যার

আইডিয়া

বর্তমানে ভিডিও গেম খেলেন না এমন কেউ কি আছেন? মোবাইল হোক আর কম্পিউটার সবকিছুতেই এখন গেমের ছড়াছড়ি। কেমন হবে যদি

বর্তমানে প্রায় সব ক্ষেত্রেই ওয়েবসাইট এর প্রয়োজন বাড়ছে। কেননা খুব সহজেই ওয়েবসাইট ব্যবহার করে সবার সাথে যোগাযোগ বৃদ্ধি করার পাশাপাশি

অনেকেই ছবি তুলতে পছন্দ করেন। শখের বশেই প্রতিনিয়তই ক্যামেরায় (Camera) ক্লিক করে যেতে থাকেন এবং অনেক অসাধারণ মুহূর্তগুলো ক্যামেরায় বন্দী

ব্লগ (Blog) হল তথ্য লাভের অন্যতম জনপ্রিয় ডিজিটাল উৎস। আজকাল অনেকেই ব্লগে লেখালেখি করে ভালো আয়ও করছেন। আপনার যদি মোটামুটি

বর্তমানে সবার হাতেই স্মার্টফোন (Smart Phone) আছে। আছে হাই-রেজুলেশন (High-Resolution) ক্যামেরা। আর আছে ছবি তোলার শখ। তাই চাইলে আপনার এই

ইউটিউব থেকে আয় করা যায় তা কমবেশি সবাই জানেন। কিন্তু কিভাবে তা নিয়ে সবসময়েই প্রশ্ন থাকে। আবার অনেক সময় ভুল

এসইও

যেকোনো ব্লগের জীবনই হচ্ছে ভিজিটর। আর ভিজিটরের পরিমাণ বৃদ্ধি করতে সবাই কোন না কোন উপায় ব্যবহার করে থাকেন। তবে বর্তমানে ভিজিটর

আপনি হয়তোবা আপনার ব্লগের ভিজিটর বৃদ্ধি করতে সবকিছুই করছেন। আরো অনেকেই করছে। কিন্তু এতো ভিড়ের ভিতর ভিজিটরদের আকর্ষণ করার মতো

অনেকেই আউটসোর্সিং এর উপর একটা ভ্রান্ত ধারণা নিয়ে বসে আছেন এবং এর মাধ্যমে সময় বা অর্থ অপচয় করে এখন এর

ইউটিউব

অনেকেই সঠিকভাবে ইউটিউব এ অ্যাডসেন্স (AdSense) অ্যাকাউন্ট যুক্ত করতে সমস্যায় পরে যান। ফলে অনেক সময় ইউটিউব থেকে আয়কৃত অর্থ অ্যাডসেন্স