Tag "ফ্রীল্যান্সিং"

অনেকেই জানতে চান অনলাইনের ফ্রীল্যান্স জব আইডিয়া নিয়ে। ফ্রীল্যান্সিং এ কি কি করা যায় এবং সে অনুযায়ী কোন কাজ শিখা যায়। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে অনলাইনে করা যায় এমন কাজের লিস্ট করা সম্ভব নয়। কেনোনা প্রায় সব কাজই অনলাইনে করা বা

অনেকেই জানতে চান অনলাইনের ফ্রীল্যান্স জব আইডিয়া নিয়ে। ফ্রীল্যান্সিং এ কি কি করা যায় এবং সে অনুযায়ী কোন কাজ শিখা যায়। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে অনলাইনে করা যায় এমন কাজের লিস্ট করা সম্ভব নয়। কেনোনা প্রায় সব কাজই অনলাইনে করা বা

ফ্রীল্যান্সিং শিখতে চাচ্ছেন? শুরু করবেন কিভাবে তা নিয়ে অনিশ্চিত? ভাবছেন কিভাবে কোথায় শুরু করবেন এবং কোথায় ট্রেনিং নিলে ভালো শিখতে পারবেন? তাহলে এই পোস্টটি আপনার জন্যই। কারণ ফ্রীল্যান্সার হিসেবে কাজ করতে চাইলে আগেই আপনার কিছু বিষয় জেনে নেয়া উচিৎ আর

ফ্রীল্যান্সিং করে যদি আয় করতে চান তবে প্রথমেই আপনাকে জানতে হবে ফ্রীল্যান্সিং আসলে কি এবং কেন। কেনোনা সাধারণ ইন্টারনেট ব্যবহার আর ফ্রীল্যান্সিং এক না। আর অনেকেই মনে করেন এখানে শুধু ইন্টারনেট এ ঘুরে বেড়ালেই আয় করা যায়। কিন্তু অনেকেই এটা

দক্ষ ফ্রীল্যান্সার হওয়া আসলেই একটু কঠিন বটে। সময় নিয়ে ধীরে ধীরেই দক্ষতা অর্জন করা সম্ভব। তবে শুধু বসে থেকেই তা সম্ভব না। তাই অল্প অল্প করেই এগিয়ে যেতে হবে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে। এর জন্য প্রয়োজন কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে যেতে সময় দেয়া এবং

একজন সফল ফ্রীল্যান্সার (Freelancer) হতে হলে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে নিজের দক্ষতা বৃদ্ধি করা। কেননা যারা কাজ দিচ্ছে তাদের মূলতই লক্ষ্য থাকে সঠিক ও মানসম্মতভাবে তাদের কাজটি যেনো কেউ সম্পন্ন করে দেয়। এবং অবশ্যই তার জন্যই তারা অর্থ প্রদান করছে। তাই

সাধারণ ফ্রীল্যান্স প্রোফাইল (Freelance Profile) এবং আদর্শ ফ্রীল্যান্স প্রোফাইল। এই দুই ধরণের প্রোফাইলের ভিতর অনেক পার্থক্য রয়েছে। এবং সাধারণ প্রোফাইলের তুলনায় আদর্শ প্রোফাইল তুলনামূলক বেশী পরিমাণে কাজ পেয়ে থাকে। এর যথেষ্ট কারণও রয়েছে। সাধারণ প্রোফাইলঃ সাধারণ প্রোফাইল বলতে শুধু প্রোফাইল

ফ্রীল্যান্সিং এ কাজ পাবার জন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটা ব্যাপার হচ্ছে প্রোফাইল। যদি প্রোফাইল আপডেটেড এবং সম্পূর্ণ না হয় তবে কাজ পাওয়ার সম্ভাবনা অনেক কমে যায়। বলা যায় সম্ভাবনা থাকেই না। আবার আকর্ষণীয় প্রোফাইল এর ক্ষেত্রে কাজ পাবার সম্ভাবনা ৭০% বেড়ে